মানসিক শান্তি ও সুখে থাকার উপায়


মানসিক স্বাস্থ
মানসিক  

আজ বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পালিত হচ্ছে দিবসটি। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘সবার জন্য মানসিক স্বাস্থ্য  অধিক বিনিয়োগ, অবাধ সুযোগ

বিশ্বব্যাপী মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে এই ইভেন্টটি প্রতি বছর 10 অক্টোবর বিভিন্ন ইভেন্টের মাধ্যমে পালিত হয়।
মানুষ দেহ ও মন নিচ্ছে।

দেহবিহীন ব্যক্তির অস্তিত্ব যেমন কল্পনা করা যায় না তেমনি মন ছাড়া ব্যক্তির অস্তিত্বও অসম্ভব। একটি স্বাস্থ্যকর দেহ এবং একটি সুস্থ মন একটি স্বাস্থ্যকর এবং সুন্দর জীবন যাপনের জন্য সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

আসুন কীভাবে মানসিকভাবে স্বাস্থ্যকর এবং সুখী থাকতে পারেন –

১. পৃথিবীর এই ক্ষণস্থায়ী জীবনটি সুন্দর, সুন্দর হওয়া উচিত এবং আমি যদি সুন্দর ও সুন্দর হতে চাই তবে আমার মানসিক স্বাস্থ্যকে সবল এবং সুস্থ রাখতে হবে।

২. আমার ভালো থাকা-খারাপ থাকা আমার মনের স্থিতিশীলতার উপর নির্ভর করে। যখনই আমার চিন্তার প্রক্রিয়াটি ভুল পথে চলে যায় তখন আমার মনের স্থিতিশীলতা হারা যায়। মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে। তাই আপনার চিন্তা আপনার নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

৩. যতক্ষণ পর্যন্ত পৃথিবীতে সমস্যা রয়েছে। সাফল্যের মতো জিনিস নেই, কারণ জীবন কেবল সাফল্য এবং ব্যর্থতার সংমিশ্রণ নয়। এই প্রত্যয় দিয়ে আপনার কাজটি প্রতিদিন শুরু করুন।

৪. ভাল হতে, সুন্দর হতে, শান্তিতে বাস করা অনুশীলনের বিষয়। আকাশ থেকে পড়ে না। তাই অনুশীলন করুন ভাল হতে, খুশি হতে – একটি অভ্যাস করুন।

৫. শখগুলি সর্বদা আপনার নাগালের মধ্যে রাখুন। সুন্দর শখের মৃত্যু মানে একজন চিন্তাশীল মানুষের মৃত্যু।

। দিনের নির্দিষ্ট সময়ে প্রতিদিন নিয়মিত অনুশীলন করুন।