মাথা ব্যথা কেন হয় ?


জানেন কি মাথা ব্যথা কেন হয়  ?
 মাথা ব্যথার বিশাল অংশজুড়ে আছে  চিন্তার জন্য মাথাব্যথা এবং মাইগ্রেন এর জন্য মাথা ব্যাথা।
 তার মত বলতে হয় চিন্তার কারনে মাথা ব্যাথা সবচেয়ে বড় অংশ জুড়ে আছে।
 জীবনযাত্রায় আমরা অভ্যস্ত সেখানে চিন্তার জন্য মাথা ব্যাথা হবে এটাই তো স্বাভাবিক।
চিন্তার জন্য ব্যথা একটি দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা যেখানে রোগের লক্ষণ দেখা যায় ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ বোধ করে কিন্তু  দৈনন্দিন কাজে লেগে যাচ্ছেন  আস্তে আস্তে চিনচিন ব্যাথা শুরু হয়ে যায়। 
যেটা  মারাত্মক না হলে একটি অস্বস্তিকর অবস্থার সৃষ্টি করে। বেলাশেষে হয়তো মাথা ব্যথার সমস্যা আরো বেড়ে যায়। 
রোগীর সম্পূর্ণ ইতিহাসটি ভালো ভাবে নিলে দেখা যাবে তার কাজ কর্মে  সে কোন চাপকে মোকাবিলা করছেন যার প্রভাব মনোদৈহিক সমস্যা হচ্ছে।
অন্যদিকে মাইগ্রেন কে আমরা দুই ভাগে ভাগ করতে পারি একটা ক্লাসিকাল মাইগ্রেন আরেকটা কমন মাইগ্রেন। মাইগ্রেন রোগটি সাধারণত নারীর বেশি হয়।
 বলা হয় যারা খুব চাপ নিতে পছন্দ করেন খুঁতখুঁতে স্বভাবের তাদের মত এই সমস্যাটা সবচেয়ে বেশি পরিমাণে দেখা দেয়। তবে এটা বংশগত ভাবেও  আসতে পারে।
  এ সমস্যা সাধারণত সারা মাথাব্যথা না করে একটি জায়গায় ব্যথা করা শুরু করে মাথা দপদপ করে. আলোর দিকে তাকাতে অনেক কষ্ট হয় আওয়াজ শুনতে কষ্ট হয় মাথা ব্যথার সঙ্গে বমি ও থাকতে পারে।
  মাসের ভেতর কয়েকবার হয় জীবনযাত্রা কি আপনার অস্থির করে তুলতে পারে
বর্তমান সময় দেখা যায় আপনি মোবাইল টিভি এবং ল্যাপটপ বা  ডেক্সটপ এর দিকে তাকিয়ে থাকলেও মাথা ব্যাথা চরম পর্যায়ে পৌঁছে যেতে পারে তাই এগুলো ব্যবহার করার সময় অবশ্যই চশমা ব্যবহার করবেন